আপনাদের সহযোগিতার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ।

Wednesday, June 14, 2017

কম্পিউটার-এর প্রজন্ম (Generation of Computer)


**> প্রথম প্রজন্ম (First Generation) - 1940-1956
কম্পিউটারে ভ্যাকুয়াম টিউব -এর ব্যবহার হল প্রথম প্রজন্মের বৈশিষ্ঠ্য। যা কম্পিউটার প্রযুক্তির ইতিহাসে এক যুগান্তরকারী আধ্যায়ের সূচনা করে। ENIAC, EDVAC, UNIVAC হল প্রথম প্রজন্মের কম্পিউটার।এটি কেবলমাত্র ভ্যাকুয়াম টিউব লাগত এবং আকারে বড়।

**> দ্বিতীয় প্রজন্ম (‍Second Generation) - 1956-1963
দ্বিতীয় প্রজন্মে কম্পিউটার প্রযুক্তির প্রায় সমস্ত দিক দিয়েই আগ্রগতি শুরু হয়। প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে, বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক সমস্যার সমাধানে কম্পিউটার এর প্রয়োগ ইত্যাদিতে। এই সার্বিক আগ্রগতির প্রধান কারন ছিল ১৯৪৭ সালে Transistor এর আবিষ্কার। এটি প্রথম প্রজন্মের তুলনায় আকারে ছোট এবং দ্রুত ক্রীয়াশীল।তবে এতে কুলিং সিস্টেমের প্রয়োজন।

**> তৃতীয় প্রজন্ম (Third Generation) - 1964-1971
কম্পিউটার তৈরিতে Integrated Circuit (IC) -এর ব্যবহার দিয়ে শুরু হয় তৃতীয় প্রজন্ম। প্রথম ও দ্বিতীয় প্রজন্ম-এর কম্পিউটার গুলি আকারে ছিল বিশাল। কয়েক হাজার ভ্যাকুয়াম টিউব বা ট্রানজিস্টার (Transistor) দিয়ে Circuit বানাতে হত। IC এমন একটি ছোটো যন্ত্রাংশ বা চিপ (Chip) যার মধ্যে অনেক গুলি Transistor দিয়ে তৈরি Circuit থাকে। প্রথম ও দ্বিতীয় প্রজন্মের তুলনায় তা গতিতে ক্রিয়াশীল। এবং সহজেই বহন যোগ্য।

**> চতুর্থ প্রজন্ম (Fourth Generation) -1971-বর্তমান
চিপ (Chip) তৈরির প্রজুক্তিতে অভাবনীয় আগ্রগতি হল চতুর্থ প্রজন্মে। যার ফলশ্রুতি হল VLSI (Very Large Scale Integration) circuit প্রযুক্তি। যার সাহায্যে একটি চিপে এক লক্ষ্যেরও বেশি ট্রানজিস্টার রাখা সম্ভব। ফলে সার্কিটের আকার ছোট হয়, তাই CPU কে একটি মাত্র চিপের মধ্যে আনা সম্ভব হয়েছে। ৪র্থ প্রজম্মের কম্পিউটার আকারে অনেক ছোট ও বহন যোগ্য। এতে কম বিদ্যুৎ শক্তির প্রয়োজন হয়।

**> পঞ্চম প্রজন্ম (Fifth Generation) - Present & Beyond
পঞ্চম প্রজন্মের কম্পিউটার এখন আসার অপেক্ষাই। হবে এক নতুন ধরনের কম্পিউটার থাকবে Artificial Intelligence.

No comments: